থার্ডআই ডেস্ক:

লাতিন আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে দাপুটে জয় পেয়েছে আর্জেন্টিনা। লিওনেল মেসির হ্যাটট্রিকে বলিভিয়াকে ৩-০ গোলে হারিয়েছে লা আলবিসেলেস্তেরা।

সেই সঙ্গে দারুণ এক কীর্তি গড়েছেন রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী তারকা। ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তি পেলেকে ছাড়িয়ে লাতিন আমেরিকার সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন চলতি মৌসুমে বার্সেলোনা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দেওয়া ফরোয়ার্ড। এর আগের ম্যাচে ব্রাজিলে গিয়ে ঝামেলা পোহাতে হয় আর্জেন্টিনাকে। শুরুর কয়েক মিনিটের মাথায় পণ্ড হয়ে যায় চির প্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে ম্যাচটি।

ব্রাজিলের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা তিনজন আর্জেন্টাইন ফুটবলারের বিরুদ্ধে কভিড সংক্রান্ত বিধিমালা ভঙ্গের অভিযোগ এনে ম্যাচ বাতিল করে দেয়।
সেই ক্ষত ভুলতে যেন তাতিয়ে ছিল লিওনেল স্কালোনির দল। ঘরের মাঠ এল মুনমেন্টালে পুরো ম্যাচে আধিপত্য ছিল আর্জেন্টিনার। এগিয়ে যাওয়ার সুযোগও তারা পেয়ে যায় দ্রুত।

লিয়ান্দ্রো পারেদেসের পাসে ১৪তম মিনিটে নিজের প্রথম গোল করেন মেসি। ২০ গজ দূর থেকে বাঁ পায়ের উঁচু শটে জাল খুঁজে নেন এলএমটেন।
প্রথমার্ধে বেশ কয়েকটি গোলের সুযোগ হাতছাড়া হয় আর্জেন্টিনার। ২৭তম মিনিটে লউতারো মার্তিনেসের একটি গোল বাতিল হয় অফসাইডের কারণে। এক গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় কোপা আমেরিকা চ্যাম্পিয়নরা।

দ্বিতীয়ার্ধে আরও বেশি আক্রমণে ধার বাড়ায় আর্জেন্টিনা। ৬৪তম মিনিটে দলের ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মেসি। মার্তিনেসের সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করার ফাঁকে দ্রুত ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন তিনি। এরপর মেসির নিচু শট জড়ায় জালে। এই গোলেই পেলের রেকর্ড ভেঙে দেন ৩৪ বছর বয়সী তারকা। লাতিন আমেরিকার সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড নিজের করে নেন মেসি।

ম্যাচের অন্তিম মুহূর্তে আবারও স্পটলাইট কেড়ে নেন তিনি। ৮৮তম মিনিটে পূরণ করেন হ্যাটট্রিক। হোয়াকিন কোরেয়ার শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান বলিভিয়া গোলরক্ষক কার্লোস লাম্পে। কিন্তু বল ছুটে যায় তার গ্লাভস থেকে। সুযোগ হাতছাড়া করেননি মেসি। বল পেয়ে জালে পাঠাতে ভুল করেনি আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের পা। এ নিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে মেসির গোল সংখ্যা দাঁড়াল ৭৯। ৭৭ গোল নিয়ে লাতিন আমেরিকা অঞ্চলে এতদিন সিংহাসন দখলে রেখেছিলেন পেলে।