থার্ডআই ডেস্ক:

বাধ্যতামূলক মাস্ক ব্যবহার, স্বাস্থ্য বিধি ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, বনের অভ্যন্তরে সর্বোচ্চ ২৫ জনের গ্রুপে ভ্রমণ এবং পর্যটনবাহী নৌযানগুলোতে ধারণ ক্ষমতার অর্ধেক পর্যটক পরিবহনের শর্তে আজ বুধবার থেকে সুন্দরবন দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

দীর্ঘ প্রায় ৫ মাস বন্ধ থাকার পর সুন্দরবন খুলে দেওয়ায় পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে আসতে শুরু করেছেন ভ্রমণ পিপাসুরা। পর্যটকদের আনা-নেওয়ায় ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন পর্যটন ব্যবসায়ীরাও।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে হঠাৎ সংক্রমণ বাড়ায় গত ৩ এপ্রিল থেকে সুন্দরবনে পর্যটকদের
প্রবেশাধিকারে নিষেধাজ্ঞা জারি করে বন বিভাগ।
এরপর করোনা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হওয়ায় ১ সেপ্টেম্বর থেকে সুন্দরবন উন্মুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয় বন বিভাগ।

সুন্দরবনের করমজল পর্যটন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাওলাদার আজাদ কবির বলেন, বেঁধে দেওয়া শর্তে দর্শনার্থীদের বনে ভ্রমণ ও তাদের প্রয়োজনীয় সকল সহযোগিতা প্রদানে বন বিভাগ প্রস্তুত রয়েছে। আশা করছি দর্শনার্থীরা সকল শর্ত মেনেই সুন্দরবন ভ্রমণ করবেন।